রাতে ঘরে ঢুকেন ইতালি প্রবাসী, খুন করে থানায় গৃহবধূ

কিশোরগঞ্জে তাসলিমা আক্তার (২৫) নামে এক গৃহবধূর হাতে খুন হয়েছেন এক ইতালি প্রবাসী। মো. আমিনুল আলম (৪৫) নামে ইতালি প্রবাসীকে হত্যা করে ভাড়া বাসায় তালাবদ্ধ রেখে পুলিশের কাছে আত্মসমর্পণ করে।

পরে পুলিশ গুরুতর অসুস্থ প্রবাসীকে উদ্ধার করে হাসপাতালে পাঠায়, যেখানে কয়েক ঘন্টা পরে তিনি মারা যান। শুক্রবার বেলা সোয়া ১১টার দিকে কিশোরগঞ্জ জেলার নীলগঞ্জ সড়কের শোলাকিয়া সেবাশ্রমের পাশে অধ্যাপক খায়রুল আলম সবুজের বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে।

নিহত মো. আমিনুল আলম নীলগঞ্জ রোডের শোলাকিয়া সেবাশ্রম এলাকার মৃত আব্দুস ছামার ছেলে। ২ মাস ৪ দিন আগে ইতালি থেকে ছুটিতে ফিরেছেন তিনি। ২ জানুয়ারি তার ইতালি যাওয়ার কথা ছিল। অপরদিকে, গৃহবধূ তাসলিমা আক্তার জেলার হোসেনপুর উপজেলার সাহেবেরচর গ্রামের নাজমুল আলমের স্ত্রী। মোঃ নাজমুল আলম কিশোরগঞ্জ সদরের গ্রামীণ ব্যাংকে কর্মরত থাকায় স্ত্রী তাসলিমা আক্তার ও দুই সন্তানসহ প্রভাষক মোঃ খায়রুল কবির ভুনা সবুজের একটি ভাড়া বাসায় থাকেন। এদিকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য গৃহবধূ তাসলিমা আক্তারের স্বামী মো. নাজমুল আলমকে আটক করেছে পুলিশ।

গত শুক্রবার বিকেলে স্ত্রী-সন্তানকে ভাড়া বাসায় রেখে নাজমুল আলম হোসেনপুর গ্রামের বাড়িতে যান। এ উপলক্ষে রাত সোয়া এগারটার দিকে আমিনুল আলম ওই গৃহবধূর ভাড়া বাসায় গিয়ে গৃহবধূর বাড়িতে প্রবেশ করেন। এক পর্যায়ে জোর করে তাকে জড়িয়ে ধরে ধর্ষণের চেষ্টা করে।

এরপর তাসলিমা আক্তার নিজেকে বাঁচাতে হাতে থাকা একটি পাথরের স্লাব দিয়ে আমিনুল আলমের মাথায় আঘাত করেন। এতে আমিনুল গুরুতর আহত হয়ে মেঝেতে পড়ে যান। আমিনুলকে মৃত রেখে তসলিমা থানায় গিয়ে ঘটনাটি পুলিশকে জানায়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

%d bloggers like this: