বিয়ে-বাচ্চা সবই অস্বীকার, অসহায় তরুণী

কর্মচারী অকারণে মেয়েটির সাথে দেখা করত, কাজে যেত, কথা বলত। এক পর্যায়ে মেয়েটিকে খারাপ কাজের প্রস্তাব দেওয়া হয়। এসবই করেছে রাজু বিশ্বাস নামে এক ব্যক্তি। তাতে রাজি না হয়ে অবশেষে একটি কাগজে সই করে বিয়ের কথা বলে শারীরিক সম্পর্ক শুরু করেন। একপর্যায়ে মেয়েটি ৩ মাসের অন্তঃসত্ত্বা হলে রাজু সবকিছু অস্বীকার করে।

কোলে দুই মাসের শিশু রুমি খাতুনও অসুস্থ। পিতৃহীন মেয়েটি এখন শিশুকে কোলে নিয়ে রাস্তায় ঘুরে বেড়াচ্ছে। আদালতে মামলা করার জন্য তাকে প্রতিনিয়ত হুমকি দেয়া হচ্ছে। মামলা না হলে এলাকা ছাড়ার ঘোষণা দিয়েছেন রাজু। মেয়েটি অসুস্থ শিশুটিকে হাসপাতালের বিছানায় রেখে যাকে পাচ্ছে তার পা ধরে শুধু বিচার দাবি করছে। বেঁচে থাকার জন্য কিছু করার অনুরোধ। নইলে কান্নায় ভেঙে পড়ছেন, চিৎকার করে বলছেন, সন্তানকে নিয়ে মরে যাওয়া ছাড়া তার কোনো উপায় নেই।

রুমি জানান, রাজুকে তার গর্ভে তিন মাসের একটি শিশুর কথা বলে। এর পরে, রাজু তাকে এড়িয়ে চলে এবং এমনকি দাবি করে যে তারা বিবাহিত নয়। অস্বীকার করে তার অনাগত সন্তানকে। এরপর তিনি কাজী অফিসে গিয়ে বিয়ের কাবিন দাবি করেন। এ কথা বলার পর তিনি জাতীয় আইনগত সহায়তা সংস্থার সহযোগিতায় ২০২১ সালের ২০ মে আদালতে মামলা করেন। মামলাটি এখনো চলছে। রাজু ও তার লোকজন এখন তাকে মামলা প্রত্যাহার করার জন্য চাপ দিচ্ছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

%d bloggers like this: