‘ওমিক্রন থেকে কারও রেহাই নেই’ লিখে স্ত্রী-সন্তানকে হত্যা করলেন চিকিৎসক!

করোনা ওমিক্রনের নতুন রূপ নিয়ে আতঙ্কে স্ত্রী ও দুই সন্তানকে হত্যা করেছেন এক ভারতীয় চিকিৎসক। নিজের ভাইকেও খুন করে হোয়াটসঅ্যাপে মেসেজ পাঠায় সে। সম্প্রতি এমনই একটি ঘটনা ঘটেছে উত্তরপ্রদেশের কানপুরে।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম আনন্দবাজার জানায়, নিজের স্ত্রী ও সন্তানদের খুন করে হোয়াটসঅ্যাপে ভাইকে মেসেজ পাঠান ওই চিকিৎসক। সেখানে লেখা ছিল, লাশ গুনতে গুনতে আমি ক্লান্ত। ওমিক্রন সংক্রমণ থেকে কেউ রেহাই পাবে না। তাদের যাতে এমন পরিস্থিতির শিকার হতে না হয় সেজন্য তাদের ছেড়ে দিচ্ছি।

পুলিশ জানায়, ওই চিকিৎসক দীর্ঘদিন ধরে মানসিক অবসাদে ভুগছিলেন। স্ত্রীকে শ্বাসরোধে হত্যা করেছে সে। দুই শিশুকেও মাথায় হাতুড়ি দিয়ে পিটিয়ে হত্যা করেন তিনি। এরপর এই চিকিৎসক তার শরীর ঢেকে দেন।

তার বাড়ি থেকে একটি ডায়েরি উদ্ধার করা হয়েছে। সেখানে তিনি খুনের কথা লিখেছেন। শুধু তাই নয়, তিনি সেখানে ওমিক্রনের কথাও উল্লেখ করেছেন। তদন্তকারীদের দাবি, ডায়েরিতে স্পষ্ট লেখা আছে এখন থেকে আর মৃতদেহ গণনা করা হবে না। সবাইকে মারবেন না।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

%d bloggers like this: